স্তন ফোড়া কেন হয় 2

মেয়েদের গোপন অঙ্গের নাম কি? 100% Best and Genuine.

মেয়েদের গোপন অঙ্গের নাম কি? একটি মেয়ের যৌন স্বাস্থ্য নিয়ে কথা বলতে শবাই অস্বস্তি মনে করে। যোনির ঠিক মতো কোন চিকিৎসা নিতে চাইনা। এই কারনে আমাদের মা এবং বোনের অনেক ধরনের যৌন রোগে ভুকতে হয়।

চলুন জেনে নেই মেয়েদের লজ্জাস্থানের বাংলা নাম কি…..

মেয়েদের গোপন অঙ্গের নাম কি?

  • Mons Pubis: এটা হল নরম, চর্বিযুক্ত জায়গাটা ঠিক উপরে, একটা ছোট কুশনের মতো।
  • ল্যাবিয়া মেজোরা: এগুলি হল বাইরের ঠোঁট যা সবকিছুকে ঘিরে থাকে। তারা প্রতিরক্ষামূলক flaps মত.
  • Labia Minora: এগুলো হল ভেতরের ঠোঁট। তারা বাইরের ঠোঁটের ভিতরে দুটি ছোট ভাঁজের মতো।
  • ভগাঙ্কুর: এটি শীর্ষে একটি ক্ষুদ্র, সংবেদনশীল স্থান, যেখানে ভিতরের ঠোঁট মিলিত হয়। এটি অত্যন্ত সংবেদনশীল এবং সত্যিই ভাল অনুভব করতে পারে।
  • ভ্যাজাইনাল ওপেনিং: এখানেই গোপনাঙ্গ খুলে যায়। এটা প্রবেশদ্বার মত।

ভিতরে, আরো

  • যোনি: এটি একটি প্রসারিত টিউবের মতো যা বাইরের সাথে ভিতরের সাথে সংযোগ করে। এটি বাচ্চা হওয়া এবং আলিঙ্গনের সময় বিশেষ অনুভূতির মতো জিনিসগুলিতে সহায়তা করে।
  • জরায়ু (গর্ভ) : এটি একটি বিশেষ জায়গার মতো যেখানে একটি মেয়ে থাকলে একটি শিশু বড় হতে পারে। এটি একটি নাশপাতি মত আকৃতির.
  • ডিম্বাশয়: এগুলি দুটি ছোট, গোলাকার অঙ্গের মতো যা বিশেষ ডিম তৈরি করে। এগুলো ডিমের কারখানার মতো।
  • ফ্যালোপিয়ান টিউব: এগুলি দুটি ছোট টানেলের মতো যা ডিম্বাশয়কে জরায়ুর সাথে সংযুক্ত করে। তারা ডিম ভ্রমণে সাহায্য করে।
  • সার্ভিক্স: এটি জরায়ুর নিচের দিকে একটি ছোট দরজার মতো। এটি পিরিয়ড হওয়া এবং বাচ্চা হওয়াতে সাহায্য করে।
মেয়েদের গোপন অঙ্গের নাম কি 1
মেয়েদের গোপন অঙ্গের নাম কি?

যোনির পর্দা কোথায় থাকে ?

এটাকে আমরা হাইমেণ বা পর্দা বলি, যেটা যোনি খোলার প্রথম অবস্থা থাকে। পর্দা কয়েক ধরনের হতে পারে, যেটা বিয়ার আগে নষ্ট হলে সাধারণতে ভারজিন নষ্ট হয়ে যায় বলে আমরা ভাবি।

যোনিতে আঙুল দিলে কি হয় ?

যখন আপনারা যোনিতে আঙ্গুল দিয়ে সুখ নিতে চান। তবে এই ক্ষেত্রে আপনাদের কিছু টা ক্ষতি হতে পারে। যেমন আঙ্গুলে কোন ধরনের ব্যাকটেরিয়া থাকলে ইনফেক্সন হতে পারে। যদি আপনারা হাত টা পরিষ্কার করে ধুয়ে নিলে ইনফেক্সন মুক্ত হতে পারে।

মেয়েদের গোপন অঙ্গের নাম কি 1
মেয়েদের গোপন অঙ্গের নাম কি?

DICLAIMER

এই ওয়েবসাইটের বিষয়বস্তু শুধুমাত্র তথ্যগত উদ্দেশ্যে এবং পেশাদার চিকিৎসা পরামর্শ, রোগ নির্ণয় বা চিকিত্সার বিকল্প হওয়ার উদ্দেশ্যে নয়।

চিকিৎসা সংক্রান্ত অবস্থার বিষয়ে আপনার যেকোন প্রশ্ন থাকলে অনুগ্রহ করে একজন চিকিত্সক বা অন্য যোগ্য স্বাস্থ্য প্রদানকারীর পরামর্শ নিন।

Related Posts

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *